Header ad

নীরবতা ভেঙে যা বললেন মাধুরী

চেনা মানুষের অচেনা দিকের সঙ্গে পরিচিত হওয়া সবসময় সুখকর নয়। ‘মি টু’ আন্দোলন প্রসঙ্গে এমন কথাই বললেন মাধুরী দীক্ষিত। তিনি জানালেন, আলোকনাথ, সৌমিক সেনের মতো মানুষের সঙ্গে নিকট সম্পর্কই ছিল তার। কিন্তু ‘মি টু’ আন্দোলনের জেরে তাদের অজানা দিক জানার পর বেশ অস্বস্তিই হয়েছিল তার।

সম্প্রতি ‘মি টু’ আন্দোলন ও তাতে জড়িয়ে পড়া একসময়ের সহকর্মী আলোকনাথ এবং পরিচালক সৌমিক সেনের বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। সেখানেই মাধুরী জানান, আলোকনাথের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে জেনে হতভম্ব হয়ে গিয়েছিলেন তিনি।

‘হাম আপকে হ্যায় কৌন’, ‘জামাইরাজা’সহ বহু হিট ছবিতে মাধুরীর সঙ্গে অভিনয় করেছেন আলোকনাথ। সব ক্ষেত্রেই মাধুরীর গুরুজনের ভূমিকায় দেখা গিয়েছে তাকে। তাঁর সঙ্গে মাধুরীর কাজের সম্পর্কও ছিল রীতিমতো ভাল। সেই আলোকনাথের নামেই ‘মি টু’ অভিযোগের কথা জেনে প্রথমে বিশ্বাস করতে পারেননি মাধুরী।

ঠিক ততটাই বিস্মিত হয়েছিলেন ‘মি টু’ আন্দোলনে পরিচালক সৌমিক সেনের নাম ওঠায়। মাধুরীর সাম্প্রতিক হিট ছবি ‘গুলাব গ্যাং’-এর পরিচালক সৌমিক। মাধুরী বলেন, “ব্যাপারটা শকিং। কারণ প্রথমেই মনে হবে। এদের তুমি চেনো কিন্তু, এভাবে চেনো না। মনে হবে যে লোকটাকে তুমি চিনতে আর যার সম্পর্কে খবরে পড়ছ সেই দু’জন আলাদা মানুষ।”

প্রসঙ্গত, আলোকনাথের বিরুদ্ধে ‘মি টু’ অভিযোগ এনেছিলেন চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক বিনতা নন্দা ও অভিনেত্রী সন্ধ্যা মৃদুল। সৌমিক সেনের বিরুদ্ধে ‘মি টু’ অভিযোগ দায়ের করেন তিনজন মহিলা।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *