Header ad

মাউথওয়াশের আরো কিছু ব্যবহার

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে মাউথওয়াশ ব্যবহারের জুড়ি নেই। এটি মূলত এক প্রকার অ্যান্টিসেপটিক দ্রবণ, যা কুলি করার কাজে ব্যবহার করা হয়।

মজার বিষয় হচ্ছে, শুধু মুখের দুর্গন্ধ দূর করতেই নয়, বরং প্রতিদিন ব্যবহার করা এ উপাদান কাজে লাগাতে পারেন ঘরোয়া আরো অনেকভাবে। জেনে নিন তেমনই কিছু উপায়:

১. ভ্রমণে বেরোনোর আগে হাতব্যাগে ঢুকিয়ে নিন মাউথওয়াশের কৌটাটি। সারা রাত ভ্রমণের পর সকালে ব্রাশ করতে না পারলেও মাউথওয়াশ ব্যবহার দেবে সতেজ নিঃশ্বাস। সেই সঙ্গে হ্যান্ড স্যানিটাইজার হিসেবেও প্রয়োজনে কাজে লাগাতে পারবেন এটি।

২. রান্নার পর হাতে লেগে থাকা দুর্গন্ধও দূর করা সম্ভব মাউথওয়াশ দিয়ে। অল্প কয়েক ফোঁটা মাউথওয়াশ দুই হাতে নিয়ে ভালো করে মেখে হাত ধুয়ে নিন। দুর্গন্ধ চলে যাবে।

৩. একটি পাতলা কাপড় হালকা ভিজিয়ে তাতে কয়েক ফোঁটা মাউথওয়াশ নিয়ে দুই পায়ে ঘষুন, তারপর পা ধুয়ে ফেলুন। পা দীর্ঘসময় দুর্গন্ধমুক্ত থাকবে, সেই সঙ্গে নখের কোণে জায়গা করে নেয়া ফাঙ্গাসও দূর হবে।

৪. যদি আপনার ফেসিয়াল টোনার শেষ হয়ে যায় এবং কিনতে যাওয়ার মতো পর্যাপ্ত সময় না থাকে, তাহলে মাউথওয়াশকেই টোনার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন। এজন্য একটি তুলোর বলকে মাউথওয়াশে ভিজিয়ে পুরো মুখ আলতো হাতে মুছে নিন। ত্বকে থাকা অবশিষ্ট মেকআপ ও বাড়তি তেল পরিষ্কার হয়ে যাবে। তবে ত্বক যদি কেমিক্যাল সেনসিটিভ হয়ে থাকে, তাহলে এ পদ্ধতি ব্যবহার না করাই ভালো।

৪. মাথায় উকুন হলে সে সমস্যা দূর করতেও কাজে লাগে মাউথওয়াশ। চার টেবিল চামচ মাউথওয়াশ আর চার টেবিল চামচ পানি মিশিয়ে মাথার তালুতে তুলোর বল দিয়ে ঘষে ঘষে লাগিয়ে শাওয়ার ক্যাপ পরে আধা ঘণ্টা অপেক্ষা করুন। তারপর মাথা ধুয়ে ফেলুন। উকুন চলে যাবে।

৫. মাউথওয়াশ কাচ পরিষ্কারক হিসেবে বেশ কার্যকরী ভূমিকা পালন করে। আয়না, দরজা-জানালার কাচ থেকে শুরু করে চশমা, কাচের গ্লাস ইত্যাদিও ঝকঝকে করে তোলার জন্য ব্যবহার করা যায় মাউথওয়াশ। একটি ভেজা সুতি রুমালে কয়েক ফোঁটা মাউথওয়াশ নিয়ে কাচের ওপর লাগিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা। তারপর ওই রুমালটি ধুয়ে চিপে জিনিসটি মুছে নিন। দেখবেন একদম ঝকঝকে হয়ে উঠেছে।

৬. যেকোনো প্লাস্টিক বা কাচের বোতল বেশ কিছুদিন ব্যবহার করলে তা কেমন যেন দুর্গন্ধময় হয়ে যায়। দুই চা চামচ মাউথওয়াশ আর আধা কাপ পানি বোতলে ঢেলে বোতলের মুখ বন্ধ করে ঝাঁকিয়ে সারা রাত রেখে দিন। এরপর ভালোভাবে ধুয়ে ব্যবহার করুন পুনরায়। দেখবেন দুর্গন্ধ আর নেই।

৭. মেকআপ ব্রাশ পরিষ্কারে ব্যবহার করতে পারেন মাউথওয়াশ। সেক্ষেত্রে এক মগ পানিতে এক টেবিল চামচ ভিনেগার, কয়েক ফোঁটা শ্যাম্পু আর কয়েক ফোঁটা মাউথওয়াশ মিশিয়ে তার মধ্যে মেকআপ ব্রাশ সারা রাত ভিজিয়ে রাখুন। সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন। আপনার মেকআপ ব্রাশগুলো একই সঙ্গে ঝকঝকে আর জীবাণুমুক্ত হবে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *