Header ad

হার্ট সুস্থ রাখতে ৬ টিপস

আমাদের প্রাত্যাহিক যাপিত জীবনের ব্যস্ততায় বিভিন্ন কারণে শরীরের প্রতি অবহেলা করি আমরা। এরফলে শরীরের বিভিন্ন অর্গান ক্ষতিগ্রস্ত হয়। সেই সঙ্গে খাদ্যে রাসায়নিক উপস্থিতি এবং অতিরিক্ত জাংক ফুডের কারণেও শরীরকে ক্ষতিগ্রস্ত করি আমরা। এক্ষেত্রে শরীরের বিভিন্ন অর্গানের মধ্যে যে অংশ ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল থাকে সেটি হলো হার্ট। হার্টের সমস্যার ব্যপারে সকলেই কমবেশি চিন্তিত। তবে সচেতনতা বৃদ্ধির মাধ্যে এই রোগকে দূরে সরিয়ে রাখা সম্ভব।

অনেকেরই ধারণা এক্সারসাইজ এবং হেলদি ডায়েটের মাধ্যমে হার্ট সুস্থ রাখা সক্ষম। তবে একথা পুরোপুরি ঠিক নয়। এই দুটো টিপস ছাড়াও আরও অনেক কিছু করা প্রয়োজন। হার্টের সুরক্ষার ব্যপারে মানুষ এখনও অনেকটাই অজ্ঞ আর এই অজ্ঞতা থেকে বিভিন্ন ধরণের হার্টের সমস্যা সৃষ্টি হয়। ফলত বিশ্বব্যাপী বহু মানুষের আজ হার্টের সমস্যার জন্য মৃত্যু হয়। এখন সময় এসেছে হার্ট সুস্থ রাখার জন্য আরও কিছু উপকারী টিপস জেনে নেওয়ার।

সুস্থ হার্টের জন্য মেনে চলুন এই ৬ টিপস

ধূমপান ত্যাগ করুন: যখন হেলদি হার্টের জন্য ধূমপান ত্যাগ করতে বলা হচ্ছে তখন আর কোনও প্রশ্ন বা সংশয় না রেখে অবশ্যই ধূমপান ত্যাগ করুন। ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর এবং এই অভ্যাস অতি দ্রুত ত্যাগ করা উচিত। ধূমপানের ফলে ক্যানসার হয় এবং শরীরের অন্যান্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গেরও ক্ষতি হয়। তাই হার্ট সুস্থ রাখতে অবশ্যই ধূমপান ত্যাগ করুন।

যৌন কার্যকলাপ বজায় রাখুন: হার্টের জন্য সেক্স উপকারী। শরীর সতেজ রাখার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপায় হল যৌন কার্যকলাপ বজায় রাখা। এর ফলে শরীর থেকে প্রচুর হরমোন নিঃসৃত হয় ফলে স্ট্রেস কমে। স্ট্রেসের ফলে হার্টের বিভিন্ন সমস্যা দেখা যায়।

খাদ্যে লবণের পরিমাণ কমিয়ে দিন: দৈনিক লবণ গ্রহণের পরিমাণ কমিয়ে দিন। খাদ্যে লবণের পরিমাণ বেশি থাকলে হাইপারটেনশন এবং হার্টের সমস্যা দেখা দেয়। লবণের পরিমাণ কমানোর পাশাপাশি আপনার জাঙ্ক ফুড খাওয়াও বন্ধ করে দেওয়া উচিত।

ডার্ক চকোলেট খান: ডার্ক চকোলেটে উপস্থিত অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফ্ল্যাভোনয়েড হার্টকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। তবে ডার্ক চকোলেট কীভাবে খেলে হার্ট সুস্থ থাকে আপনার তা অবশ্যই জানা উচিত। রাতে খাবার খাওয়ার পর এক টুকরো ডার্ক চকোলেট আপনাকে তৃপ্তি দেওয়ার পাশাপাশি আপনার হার্টকে সুস্থও রাখবে।

লিফটের পরিবর্তে সিঁড়ি ব্যবহার করুন: লিফট এবং এস্ক্যালেটরের যুগে আমরা সিঁড়ির ব্যবহার ভুলতে বসেছি। কিন্তু এইভাবে সুস্থ থাকা সম্ভব নয়। আপনার রোজকার ওয়ার্কআউট রুটিনে সিঁড়ির ব্যবহার যোগ করুন। সুস্থ থাকুন।

মুখের স্বাস্থ্যের দিকে নজর দিন : মুখের স্বাস্থ্য আপনার সম্পূর্ণ স্বাস্থ্য কেমন তার নির্দেশক। বিভিন্ন গবেষণায় জানা গেছে, মুখের স্বাস্থ্য খারাপ হলে তা হার্টের খারাপ স্বাস্থ্যের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। আপনার দাঁত এবং মাড়ি সুস্থ রাখতে নিয়মিত দাঁত ব্রাশ করুন এবং দাঁত পরিষ্কার রাখুন। আপনার দাঁতে সমস্যা দেখা দিলে তা ক্যাবিটি ছাড়া অন্য রোগেরও নির্দেশক।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *