Header ad

আইনের আশ্রয়ে প্রিয়াঙ্কা-নিক

সাবেক বিশ্বসুন্দরী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও মার্কিন গায়ক নিক জোনাস রাজকীয় আয়োজনে বিয়ে করেছেন মাত্র চার মাস হলো। আর এর মধ্যেই মার্কিন ট্যাবলয়েড ‘ওকে!’ প্রচ্ছদ প্রতিবেদনে জানিয়েছে, বিচ্ছেদের পথে এ তারকা-যুগল। খ্যাতনামা ওই সাময়িকীর প্রচ্ছদে লেখা—‘বিয়ের ১১৭ দিনের মধ্যেই বিচ্ছেদ!’

প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘কাজ কিংবা পার্টি অথবা একসঙ্গে সময় কাটানো—সবকিছুতেই তাঁদের মধ্যে বিবাদ লেগেই থাকে। এ সবেরই মূল্য এখন প্রিয়াঙ্কা-নিককে দিতে হচ্ছে। তাঁদের বিয়ে সুতার ওপর ঝুলছে।’

ওই খবরে ভীষণ চটেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনাস। তাঁদের জনসংযোগ কর্মকর্তাদের তরফে জানানো হয়েছে, এ ধরনের ভুয়া খবরে যারপরনাই বিরক্ত প্রিয়াঙ্কা-নিক। শিগগিরই তাঁরা ওই ম্যাগাজিনের কাছে আইনি নোটিশ পাঠাবেন। এ ধরনের খবরে প্রিয়াঙ্কা-নিকের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। তাই মানহানির জন্য মোটা অঙ্কের ক্ষতিপূরণও চাওয়া হতে পারে।

এর আগে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার প্রতিনিধি ওই খবর উড়িয়ে দেন। প্রিয়াঙ্কা ও নিকের ভক্তদের তোপের মুখে ওই প্রতিবেদন নামিয়ে ফেলতে বাধ্য হয় প্রকাশনাটি।

ডিভোর্সের খবর সম্পর্কে প্রিয়াঙ্কার চাচাতো বোন পরিণীতি চোপড়া বলেন, ওই প্রতিবেদনটি ভয়াবহ ও অরুচিকর। তিনি আরো বলেন, এ বিষয়ে কথাও বলতে চান না তিনি। ‘কেসারি’ অভিনেত্রীর মত, যদি ওই খবরের কোনো সত্যতা থাকত, তাহলে প্রতিবেদন নামিয়ে ফেলত না ট্যাবলয়েডটি।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *