Header ad

মডেলিং করতে গিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছিল

সেক্স ট্রাফিকিং। কিছু মানুষের কাছে হয়তো পরিচিত শব্দ। তারা জানেন, কী ভয়ঙ্কর সব ঘটনা ঘটে আপাত নিরীহ এই শব্দের মধ্যে। আবার অনেকে না জেনেই সেক্স ট্রাফিকিংয়ের বিপদে পা বাড়ান। তেমনভাবেই না জেনে বিপদে পড়েছিলেন পেশায় মডেল এইরিকা ক্রাহমার। সদ্য প্রকাশ্যে সেই অভিজ্ঞতার কথা শেয়ার করেছেন।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, মার্কিন মডেল এইরিকা প্রথম মডেলিংয়ের কাজ করতে গিয়েছিলেন নিউ ইয়র্ক। একটি এজেন্সির মাধ্যমে সে শহরে পৌঁছে জানতে পারেন, মডেলিংয়ের কাজ খুঁজে নিতে হবে নিজেকেই। ‘দু’টো বেডরুমের একটা ফ্ল্যাটে আমাদের ২১ জনকে থাকতে হত। কখনও কখনও সংখ্যাটা ৩০ হয়ে যেত। সে সময় ওই এজেন্সিরই এক ম্যানেজার আমাকে ড্রাগ খাইয়ে ধর্ষণ করে। একটা ক্লাবে ঘটেছিল সেই ভয়ঙ্কর ঘটনা। আমি পালানোর চেষ্টা করি। তখন রাস্তা থেকে অপহরণ করা হয়। পরের দিন ঘুম ভাঙতে দেখি একটা খাটে শক্ত করে বেঁধে রাখা হয়েছে আমাকে’ দুঃস্বপ্নের স্মৃতি শেয়ার করেছেন এইরিকা।

সেক্স ট্রাফিকিংয়ের ফাঁদে পড়ে বিক্রি হয়ে গিয়েছিলেন এইরিকা। তিন দিন বন্দি অবস্থায় একাধিকবার ধর্ষণ করা হয় তাকে। মারা হয় বহুবার। তিন দিন পর সেই পরিস্থিতি থেকে কোনও মতে পালিয়ে কাছের একটা হোটেলে গিয়ে সাহায্য চেয়েছিলেন তিনি। সেখানকার এক মডেল তাকে সাহায্য করেছিলেন। বহু স্বপ্ন নিয়ে মডেলিং করতে গিয়ে বিক্রি হয়ে গিয়েছিলেন, ধর্ষিতা হতে হয়েছিল এইরিকাকে। এতদিন পরে সেই দুঃস্বপ্নের স্মৃতি প্রকাশ্যে শেয়ার করেছেন তিনি।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *