Header ad

ঢাকায় আসা হলো না ঋতুপর্ণার

ঢাকায় আসা হলো না ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের। গতকাল রোববার রাতের একটি ফ্লাইটে ঢাকায় আসার কথা ছিল তার। কিন্তু ভিসা না পাওয়াতে আসতে পারলেন না এই অভিনেত্রী। সোমবার থেকে ‘জ্যাম’ ছবির শুটিং-এ অংশ নেয়ার কথা ছিল তার। ছবির পরিচালক নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল জানিয়েছেন, ঋতুপর্ণা দেশে এলেই ছবির শুটিং শুর করবেন।

প্রয়াত আহমেদ জামান চৌধুরীর মূল ভাবনায় ‘জ্যাম’ ছবির কাহিনী বিন্যাস করেছেন নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামূল ও নায়ক মান্নার স্ত্রী শেলী মান্না। চিত্রনাট্য ও সংলাপ রচনা করেছেন পান্থ শাহরিয়ার। ছবিতে আরও অভিনয় করছেন আরিফিন শুভ, ফেরদৌস ও পূর্ণিমা।

‘শ্বেতপাথরের থালা’র মাধ্যমে রূপালি পর্দায় ঋতুপর্ণার অভিষেক হয়। সেটি ১৯৯৫ সালে কথা। ছবিতে সহ-অভিনেত্রীর চরিত্রে কাজ করেন তিনি। প্রভাত রায়ের ছবিটি ওই বছর শ্রেষ্ঠ বাংলা ছবি হিসাবে জাতীয় পুরস্কার লাভ করে।

এরপর ‘সুজন সখী’, ‘নাগপঞ্চমী’, ‘মনের মানুষ’ ও ‘সংসার সংগ্রাম’ ছবির মাধ্যমে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেন ঋতুপর্ণা।

ঋতুপর্ণ ঘোষের ‘দহন’ (১৯৯৭), ‘উৎসব’ (২০০০), অপর্ণা সেনের ‘পারমিতার একদিন’ (২০০০) ও বুদ্ধদেব দাশগুপ্তের ‘মন্দ মেয়ের উপাখ্যান’ (২০০২) ছবিতে তার অভিনয় বোদ্ধা মহলের প্রশংসা অর্জন করে। এছাড়া ‘দহন’ ছবিতে ধর্ষণের শিকার এক নববিবাহিতার চরিত্রে অভিনয় করে ১৯৯৮ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর জাতীয় পুরস্কার অর্জন করেন।

বাংলাদেশে ‘সাগরিকা’, ‘স্বামী ছিনতাই’, ‘রাঙা বউ’, ‘একটি সিনেমার গল্প’সহ বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করেছেন ঋতুপর্ণা।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *