Header ad

এই ইলেকশন দিয়ে ইন্ডাস্ট্রির কিছুই হবে না

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০১৯-২১ মেয়াদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় গত শুক্রবার ২৫ অক্টোবর। ছোট বড় সকল মাপের তারকাই এই নির্বাচনে ভোট দিতে এসেছিলেন। তবে প্রয়োজনের চেয়ে অতিরিক্ত প্রশাসনের উপস্থিতি দেখে অনেক জ্যেষ্ঠ শিল্পীরাই এতে বিব্রত ও আশ্চর্য হয়েছেন। এর মধ্যে এ নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন সোহেল রানা ও শাকিব খান।

নির্বাচনের দিন প্রযোজক সমিতির লবিতে গণমাধ্যমের সাথে এসব নিয়ে কথা বলেন। এই নির্বাচন নিয়ে অনেকটা উপহাস ও তিরস্কারও করেন শাকিব খান। বলেন, বলিউডে কখনো বাংলাদেশের শিল্পী সমিতির মত পিকনিক নিয়ে ব্যস্ত থাকে না। আমাদের মত তারা শিল্পীদের কোনো নির্বাচনে ভোট দিতে জাননা।

শাকিব আরও বলেন, যেখানে আমাদের দাবী চাওয়া পূরণ করার জন্য প্রধানমন্ত্রী আছে, তথ্যমন্ত্রী আছেন সেখানে শিল্পীদের কল্যাণে কাজ করা ছাড়া তো এই সমিতির আর কোনো কাজ নেই। তবে কেন এতো নিরাপত্তার বাড়াবাড়ি।

এই নির্বাচনের মূল উদ্দেশ্যের কথা প্রকাশ করে, শাকিব বললেন, ‘এই নির্বাচনকে ‘ক্যাশ করে’ কিছু মানুষ দেশবাসীর নিকট নিজেদের চেহারা পরিচিত করার চেষ্টা করছে। তাদের মনে রাজনীতিবিদ হওয়ার সুপ্ত ইচ্ছা রয়েছে। তবে এই নির্বাচন নিয়ে আসলে রাজনীতিবিদ হওয়ার চেষ্টা করাটাই বৃথা’।

কড়া পুলিশি নিরাপত্তার প্রসঙ্গে শাকিব খান বলেন, ‘প্রশাসনের এতো চাপ এতো চাপ যে এটা জাতীয় নির্বাচনকেও হার মানিয়েছে। এই ইলেকশন দিয়ে ইন্ডাস্ট্রির আমূল পরিবর্তন হয়ে যাবে? কিছুই হবে না, এই এসোশিয়েশনের মূল্যায়নই বাঁ কতটুকু?’

অনেকটা ক্ষোভ নিয়ে শাকিব বলেন, ‘গত বছরও দেখেছি এফডিসিতে লম্বা লাইন, লাইন ধরে মানুষজন ঢুকছে। শর্ত দেওয়া হচ্ছে আপনার পাশে কে? তাকে ঢুকতে দেওয়া হবে না, এইবারও সেইম দেখলাম। আরে আমার এফডিসি এটা। আমি কাকে জবাবদিহী করতে যাবো। এটা আমার ঘর, আমার সাথে যিনি রয়েছেন তিনিও গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি।’

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *