Header ad

ঋত্বিক ঘটকের বাড়ি ভেঙে গ্যারেজ, চলচ্চিত্রকর্মীদের প্রতিবাদ

চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক কুমার ঘটক রাজশাহী মহানগরীর মিঞাপাড়ার বাড়িতে বড় হয়েছেন। এখানে কেটেছে তার শৈশব, কৈশোর ও তারুণ্যের একটি অংশ। এই বাড়িতে কিছু সময় বসবাস করেছেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক মহাশ্বেতা দেবীও। এই বাড়িতে থাকার সময়ই ঋত্বিক ঘটক রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল ও রাজশাহী কলেজে পড়েছেন।

এরশাদ সরকারের আমলে ১৯৮৯ সালে নামমাত্র মূল্যে তার পৈতৃক বাড়িটি রাজশাহী হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজকে ইজারা দেওয়া হয়। তারাই এখন সম্পূর্ণ বাড়িটি ব্যবহার করছে। বাড়িটির এক অংশে ইতোমধ্যে বহুতল ভবন করছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। আরেক অংশে যেসব কক্ষে ঋত্বিক ঘটকের পরিবারের সদস্যরা থাকতেন, সেসব কক্ষও ব্যবহার করছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। তারই একটি অংশ ভেঙে অস্থায়ী সাইকেল গ্যারেজ নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এ সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়েছেন রাজশাহীর সামাজিক-সাংস্কৃতিক ও চলচ্চিত্র সংগঠনের কর্মীরা। ইতোমধ্যে গ্যারেজ নির্মাণ না করার দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছেন তারা।

সোমবার (২৩ ডিসেম্বর) বিকালে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ শরীফুল হকের হাতে এ স্মারকলিপি তুলে দেওয়া হয়। রাজশাহীর প্রগতিশীল ১৩টি সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মীরা এ স্মারকলিপি তুলে দেন।

এসময় রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি আহসান কবীর লিটন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি অধ্যাপক ড. সাজ্জাদ বকুল, কবি ও কবিতার সংগঠন ‘কবিকুঞ্জের’ সভাপতি অধ্যাপক রুহুল আমিন প্রামানিক, ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ ইসলাম মাসুদ, নাট্য সংগঠন ভোর হলোর সভাপতি কামার উল্লাহ সরকার কামাল উপস্থিত ছিলেন।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *