Header ad

ঘুম যদি ভালো না হয়…

সুস্থ থাকতে হলে অনেক কিছুই শুনতে হয় মানতে হয় পালন করতে হয়। যেমন ঠিকমতো খাওয়া-দাওয়া, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা, বিশ্রাম নেয়া সময়মতো ঘুমানো আবার সকাল সকাল জেগে ওঠা। প্রতিদিনের জীবনযাপনে এসব কী সবাই মানেন?

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হার্বাড ইউনিভার্সিটির এক গবেষণার জানা গেছে, একজন প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ মানুষের জন্য ৬ থেকে ৮ ঘণ্টা ঘুমানো উচিৎ, তা না হলে মস্তিষ্কে রক্ত চাপ বেড়ে যেতে পারে আর এ থেকে হতে পারে বড় ধরনের সমস্যাও।

পর্যাপ্ত পরিমাণে না ঘুমালে শরীরে সবচেয়ে বড় আঘাত লাগে মস্তিষ্কে। শতকরা ৪০ ভাগ লোক ৭ বা ৮ ঘণ্টার চেয়ে কম ঘুমায়। মাত্র এক রাত ঘুম কম হলেই শরীরে এর ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে শুরু করে। যথেষ্ট ঘুম না হলে চোখ লাল হয়, গায়ের চামড়ার রঙ নষ্ট হয়। অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

ভালো ঘুম না হলে যেসব সমস্যা হতে পারে

১. নিজেকে দেখতে যেমন তার চেয়ে খারাপ দেখায়।
২. ঘন ঘন ঠাণ্ডা-সর্দি লাগে।
৩. সামান্যতেই নার্ভাসনেস বেড়ে যায়।
৪. স্মৃতিশক্তি হ্রাস পেতে শুরু করে।
৫. স্ট্রোক করার ঝুঁকি চারগুণ বেড়ে যায়।
৬. স্থুলতা বেড়ে যায়।
৭. ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ে।
৮. ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ে।
৯. হৃদরোগের আশঙ্কা বাড়ে।
১০. শরীরে শুক্রাণু কম উৎপন্ন হয়।

এছাড়া মাথা ব্যথা, বমিভাব, মেজাজ খিটখিটে, কিছুই ভালো না লাগা, সবসময় ক্লান্তিতে ভোগা এবং একাকিত্ব বোধ বেড়ে যায়। একরাত ঘুম কম হওয়া বা অল্প সময় ধরে ঘুম কম হওয়ার সমস্যাটি পরে গুরুতর হয়ে উঠতে পারে। এক রাত ঘুম না হলে মস্তিষ্কের কোষের ক্ষয় শুরু হয়। এছাড়া ব্রেস্টক্যানসারসহ বিভিন্ন ক্যানসারের ঝুঁকি বেড়ে যায়। সবমিলিয়ে বেড়ে যায় মৃত্যুর ঝুঁকিও।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *