Header ad

মসৃণ, উজ্জ্বল ত্বক আত্মবিশ্বাস বাড়ায়

ভালো খাবার খেলে, তার ছাপ মুখে পড়বেই। সৌন্দর্য বিশেষজ্ঞ থেকে শুরু করে চিকিৎসক, কেউই এ কথা অস্বীকার করেন না। তবে এমন বেশ কিছু খাবার আছে, যা খেলে এবং মুখে মাখলে ত্বকের অনেকাংশ উজ্জ্বল দেখায়। বিভিন্ন গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে ত্বক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, গায়ের রঙ যেমনই হোক, মসৃণ, উজ্জ্বল ত্বক আত্মবিশ্বাস বাড়ায়। একুশ শতকে আমাদের দেশের অধিকাংশ তরুণ তরুণীই প্রসাধনী ব্যবহারের পক্ষে। একে তো হাতে সময় কম, তার চেয়ে প্রাকৃতিক উপায়ে উজ্জ্বল ত্বক ধরে রাখার দিকেই ঝুঁকছে আজকের প্রজন্ম।
দেখে নিন সেরকম একটি খাবার তালিকা
অলিভ অয়েল
ত্বকের ময়েশচারাইজার হিসেবে ভালো কাজ করে অলিভ অয়েল। সূর্যাস্তের পর বাইরে বেরোলে হাল্কা করে অলিভ অয়েল মেখে বেরোতে পারেন। রাতে শোয়ার আগে নাইট ক্রিম হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। মেকাপ ধোয়ার জন্য খুব ভালো কাজ করে অলিভ অয়েল।
বেসন-দুধ
দুধে প্রচুর পরিমাণে ল্যাক্টিক অ্যাসিড থাকায় ত্বকের পুষ্টির জন্য খুব ভালো। দুধ মাখলে ত্বক অনেকটা নরমও হয়। দুধের সঙ্গে একটু বেসন মিশিয়ে সারা মুখে ম্যাসাজ করলে দূষণের কারণে মুখে জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার হয়ে যাবে।
কফি আর নারকেল তেল
মুখ ও দেহে স্ক্রাব তৈরির ক্ষেত্রে কফির গুড়ার সঙ্গে নারকেল তেলের মিশ্রণ খুব কাজ দেবে। তবে স্ক্রাব তৈরির জন্য এটি ঘনঘন ব্যবহার করা যাবে না। আর চোখের আশেপাশে স্ক্রাব করবেন না। সপ্তাহে দু’বার কফি গুড়ার সঙ্গে নারকেল অথবা কাঠ বাদামের তেলের মিশ্রণ দিয়ে স্ক্রাব করলে দেহের ডেড সেল সজিব হবে।
দই
ড্রাই স্কিন অর্থাৎ শুষ্ক ত্বকে দই খুব উপকারী। দইয়ের সঙ্গে মধু, বেসন আর হলুদের মিশ্রণ তৈরি করে ১০ থেকে ২০ মিনিট মুখে লাগিয়ে ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। দেখবেন ত্বক একেবারে সতেজ দেখাবে।
পেপে
মুখে মেচতা দূর করতে পেপে বেশ কার্যকরী। পেপে স্ম্যাশ করে ঘন পেস্ট বানিয়ে ২০ মিনিটের মতো মুখে লাগিয়ে রেখে ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।
টমেটো
মুখের ডার্ক স্পট দূর করতে টমেটো খুব উপকারী।
ত্বক বিশেষজ্ঞ ডা. ঝুমু খান জানান, প্রতিদিন কিছু বদঅভ্যাস ও অসচেতনতার কারণেই বয়সের আগেই চেহারায় বুড়িভাব চলে আসে। এতসব বদঅভ্যাস ও অসচেতনতার মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে রোদের ক্ষতিকর প্রভাবকে অবহেলা করা। ত্বকের সবচেয়ে বড় ক্ষতি করে রোদ। এই জন্য মেকআপ নয়, ত্বকের পরিচর্যা যথাসম্ভব ঘরোয়াভাবেই করা উচিত। এতে উজ্জ্বলতা ফিরে আসবে।
ত্বক বিশেষজ্ঞ ডা. সমরেশ হাযরা জানান, বেশি পরিমাণে ব্রণ, দাগ থাকলে ত্বক পরীক্ষা নিরীক্ষা করুন। ত্বকের অনেক মেডিসিন এসিডিক হওয়ার কারণে ডাক্তার এর পরার্মশ ছাড়া মেডিসিন ব্যবহার না করাটাই ভালো। তাতে হিতে বিপরীত হতে পারে।
shijang
এটা সব ধরনের ত্বকের জন্য উপযোগী। এতে থাকা হাইড্রোলাইজড কোলাজেন ত্বকে এক্সট্রা ব্রাইটেনিং গ্লো এনে দেয় এবং আর্দ্রতা ধরে রাখে।
কাজ
* ত্বকে জোগায় এক্সট্রা নিউট্রেশন।
** নিউট্রেশনের পাশাপাশি স্কিনের কালার অনেকটা ইম্প্রুভ করবে, স্কিন হোয়াটনিং করে।
* কোন প্রকার ক্ষতিকার সালফেটস, কিংবা প্যারাবন নেই।
** স্কিন হাইড্রাইট রাখে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *