Header ad

মিথিলা-সৃজিতকে নিয়ে ঘৃণা না ছড়ানোর আহ্বান অনুপমের

বাংলাদেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মিথিলার সঙ্গে বিয়েটা হয়েই গেল কলকাতার স্বনামধন্য নির্মাতা সৃজিত মুখার্জির।

৬ ডিসেম্বর কলকাতার একটি ফ্ল্যাটে বহুল আলোচিত এ বিয়ে হয়। মিথিলা-সৃজিত সম্পর্কে চমক থাকলেও নাটকের নাটকীয়তা কিংবা সিনেমার সাসপেন্স— কিছুই ছিল না বিয়ের আয়োজনে। ঘরোয়া আয়োজনে নিকটাত্মীয়, ঘনিষ্ঠজনদের নিয়ে সৃজিতের সঙ্গে গাঁটছাড়া বেঁধে নিলেন মিথিলা।

বিয়ের অনুষ্ঠানে মিথিলা সেজেছিলেন বাংলার চিরায়ত বধূসাজে। তার পরনে ছিল লাল জামদানি, কপালে ছিলে ছোট্ট টিপ। সৃজিত কালো পাঞ্জাবির সঙ্গে লাল জহরকোর্ট পরেন। অনুষ্ঠানে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠরা ছিলেন। সবার মধ্যমনি ছিলেন মিথিলার মেয়ে আইরা।

মিথিলা-সৃজিতের এই বিয়ে নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। কেউ কেউ এই দুজনকে নতুন জীবনে স্বাগত জানালেও নেটিজনদের বিদ্রূপ চলছেই। কিছু দিন আগে ফাহমির সঙ্গে মিথিলার একান্ত স্থিরচিত্র প্রকাশ পাওয়ার দুই মাস যেতে না যেতেই সৃজিতের কাঁধে ঝুলে পড়াটা মেনে নিতে পারছেন না অনেকে। এসবের কারণেই হয়তো ঘরোয়া আয়োজনে বিয়েটা সারলেন তারা। কিন্তু তাতেও থামছেন না সমালোচকরা।

আক্রমণাত্মক নেটিজেনদের নিবৃত্ত করতে এবার এগিয়ে এলেন ভারতের জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী অনুপম রায়।

সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে মিথিলা-সৃজিত সম্পর্কে অনবরত বিদ্বেষ-ঘৃণা ছড়ানো শালীনতার সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। এসব মন্তব্য দেখে কেউ কেউ লজ্জায় মুখ ঢাকছেন। আর এমন পরিস্থিতিতে নিজেকে দূরে রাখতে পারেননি অনুপম।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে সৃজিত-মিথিলাকে অভিনন্দন জানিয়ে অনুপম এ নিয়ে ঘৃণা না ছড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন। লিখেছেন– ‘No points for guessing who is getting hitched today! সৃজিতদার জীবনে বসন্ত এসে গেছে! অভিনন্দন কমরেড!’

অনুপমের পোস্টটি এরই মধ্যে ৩৭ হাজারেরও বেশি লাইক পেয়েছে। এতে মন্তব্য জমা পড়েছে তিন হাজারেরও বেশি। কিন্তু সেখানেও বাদ সাধেন কিছু নেটিজেন। অনুপমের পোস্টেও তারা একের পর এক নেতিবাচক মন্তব্য করতে থাকেন।

এসবের প্রতিবাদ জানিয়েছেন অনুপম। কমেন্টে লেখেন– ‘শুভদিনে অভিনন্দন জানাতে না পারলেও ঘৃণা-বিদ্বেষ ছড়াবেন না। এটা অনুরোধ।’

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *