Header ad

অস্ট্রেলিয়ার ব্যান্ডের সঙ্গে রনিম

বাংলা ব্যান্ড সংগীতের সোনালী দিনগুলোতে যেসব জনপ্রিয় গান উপহার পেয়েছেন শ্রোতারা। এরমধ্যে বেশ কিছু শ্রোতাপ্রিয় গানের গীতিকার ছিলেন রনিম। ২০০৬ সালে মাইলসের ‘জাতীয় সঙ্গীতের দ্বিতীয় লাইন’ গানটি লেখার পর গীতিকার রনিম অন্যান্য ব্যান্ড ও শিল্পীর জন্য গান লেখা ছেড়ে দেন।
দীর্ঘ বিরতীর পর আবারও ফিরলেন গীতিকার রনিম। বাংলাদেশের গন্ডি পেরিয়ে তিনি এবার আন্তর্জাতিকভাবে গান লেখার মাধ্যমে সঙ্গীত জগতে ফিরে এলেন। সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ার বাংলা ব্যান্ড ‘আততায়ী’র অফিসিয়াল গীতিকার হিসেবে যুক্ত হয়েছের বাংলাদেশের গীতিকার রনিম।
দুঃখওয়ালা খ্যাত এই গীতিকার জানালেন, অস্ট্রেলিয়ার আততায়ী ব্যান্ডের সকল গান শুধুমাত্র রনিমই লিখবেন। ইতোমধ্যে তার লেখা এই ব্যান্ডের ১টি বাংলা ও ১টি ইংরেজী গানের রেকর্ডিংয়ের কাজ শুরু হয়ে গেছে। এর পাশাপাশি আরো ২টি বাংলা গানের মিউজিক প্রস্তুতি চলছে।
এ প্রসঙ্গে রনিম বলেন, ‘আন্তর্জাতিকভাবে বাংলাদেশের বাইরের ব্যান্ডের সঙ্গে কাজ করার মধ্য দিয়ে সংগীত জগতে ফিরে আসাটা অবশ্যই একটি ব্যতিক্রমী ঘটনা আমাদের ইন্ডাস্ট্রিতে। আমার জানামতে এই প্রথম আন্তর্জাতিক পর্যায়ের কোনও ব্যান্ডের অফিসিয়াল গীতিকার হিসেবে বাংলাদেশে কোনও গীতিকারের যুক্ত হওয়া।’
বাংলাদেশেও কাজ শুরুর বিষয়ে রনিম বলেন, ‘বিদেশের ব্যান্ডের সঙ্গে কাজ করার পাশাপাশি আমি আমার দেশের প্রমিনেন্ট ব্যান্ড ও শিল্পীদের কাজ করব এখন থেকে ইনশাল্লাহ। সেই সঙ্গে গান গাইতে পারে এমন নতুন ছেলে-মেয়েদেরকেও আমার লেখা ও সুরে গান গাওয়ার সুযোগ করে দেয়ার পরিকল্পনা করছি।’
রনিমের লেখা উল্লেখযোগ্য জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে আছে জেমসের গাওয়া ‘আমি এক দুঃখওয়ালা’, ‘ঘুমে ঘুমে পালকি চড়ে’, ‘নায়ক আমি’, শাফিন আহমেদের গাওয়া ‘জাতীয় সঙ্গীতের দ্বিতীয় লাইন’, ‘নাচো বাংলাদেশ’, হাসানের গাওয়া ‘মারহাবা প্রেম মারহাবা’, ‘নেভার মাইন্ড বাংলাদেশ’, বিপ্লবের গাওয়া ‘প্রেম ডট কম’, ‘প্রেমিক ডাকাত’, আইয়ুব বাচ্চুর গাওয়া ‘সময়ের ইশারায়’ প্রভৃতি।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *