Header ad

বেশিদিন বেঁচে থাকার রহস্য জানালেন বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ব্যক্তি

জন্ম নিলে মরতে হবেই। এটাই নিয়ম। আল্লাহ তাআলা বলেছেন, প্রত্যেক প্রাণীকে মৃত্যুর স্বাদ নিতে হবে। এটাই চিরন্তন সত্য। তবে কিছু মানুষ আছেন যারা মৃত্যুকে জয় করেননি বটে, কিন্তু নিজের বয়স দিয়ে অন্যকে চমকে দেন। তেমনই একজন ব্যক্তি চিতেস্তু ওয়াতানাবে (Chitetsu Watanabe)। তার বর্তমানে ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ পর্যন্ত বয়স ১১২ বছর ৩৪৪ দিন এবং তিনি এখনও জীবিত।

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক পুরুষ মানুষ হিসেবে তিনিই বিবেচিত হন। যুবক বয়সে পেশায় একজন কৃষক ছিলেন তিনি। নিজের দীর্ঘায়ুর রহস্য হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, ‘কখনও রাগ করা যাবে না, আর সবসময় মুখে হাসি রাখতে হবে।’

১৯০৭ সালে উত্তর জাপানের নিইগাতা শহরে জন্মগ্রহণ করেন চিতেস্তু ওয়াতানাবে। তিনি গ্রিনিস ওয়ার্ল্ডের তরফ থেকে সার্টিফিকেটও পেয়েছেন।

জাপানের এই বয়স্ক ব্যক্তি জানিয়েছেন, দাঁত না থাকলেও পুডিং এবং ক্রিম পাফ খেতে পছন্দ করতেন তিনি। কারণ এই ধরণের খাবারগুলো দাঁত দিয়ে চাবাতে হয় না। এর আগে যে ব্যক্তি বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক ছিলেন, তার নাম মাসাজো নোনাকা। তিনিও জাপানেরই নাগরিক ছিলেন। ২০১৯ সালে ১১৩ বছরে মৃত্যু হয় তার।

চিতেস্তু ওয়াতানাবে (Chitetsu Watanabe) সম্পর্কে বলতে গিয়ে তার বড় ছেলের পুত্রবধূ জানিয়েছেন, ওয়াতানাবেকে তিনি কখনও রাগতে দেখেননি। পাশাপাশি তিনি যথেষ্ট যত্নশীল।

অন্যদিকে, ওয়াতানাবে নিজের সম্পর্কে বলেছেন, ‘আমি মনে করি, এক ছাদের নীচে একটি বড় পরিবারের সাথে বসবাস করছি, এখানে নাতি-নাতনিরা আমার মুখের হাসি বাঁচিয়ে রেখেছে।’

সুতরাং বেশিদিন বেঁচে থাকতে হলে চিতেস্তু ওয়াতানাবের জীবনযাপনের ধরন আমলে নিয়ে নিজেকে সুস্থ ও সুন্দর থাকার চেষ্টা করা দরকার। কথায় বলে রেগে গেলেন তো হেরে গেলেন আবার একটু খানি হাসি দিয়ে অনেক কিছুই জয় করা সম্ভব।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *