Header ad

যেসব খাবারে রাতে ভালো ঘুম হয়

সুস্থ্য থাকা, দৈনন্দিন কাজ-কর্ম ঠিকভাবে করার জন্য প্রয়োজন রাতে একটি আরামদায়ক ঘুমের। কারণ, ঘুম পরবর্তী দিনের জন্য মানুষের শরীরকে তৈরি করে।

কিন্তু বর্তমানে নানা সমস্যায় অনেকেই রাতে ঠিকমতো ঘুমাতে পারেন না। এতে রাত যেমন কষ্টে কাটে, তেমনি পরদিন কাজ করতে গিয়ে তৈরি হয় অস্বস্তি। বিশেষ করে অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, শরীরচর্চা না করা, গ্যাজেটনির্ভর আধুনিক বিলাসি জীবন অনেকের ঘুম কেড়ে নিয়েছে। যাদের রাতে ঘুম আসেনা, দেখা যায়, তাদের শরীর প্রচণ্ড ক্লান্ত কিন্তু ঘুম আসে না।

রাত জাগা শরীরের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। রাতে ঘুম ঠিকমতো না হলে নানাবিধ শারীরিক রোগ দেখা দিতে পারে। মেজাজ খিটখিটে হয়ে থাকে, কাজে মন বসেনা, এছাড়াও আরও নানাবিধ সমস্যা। তাই রাতে প্রয়োজন একটি আরামদায়ক ও নিরবিচ্ছিন্ন ঘুম।

বিভিন্ন গবেষণা বলছে, এমন কিছু খাবার রয়েছে, যা খেলে রাতের ঘুম ভালো হয়। ওই খাবারগুলোর কারণে শরীরে মেলাটোনিন ও কর্টিসল হরমোন নিঃসরণ হয়। ফলে রাতে ঘুমও ভালো হয়।

তাই রাতে ভালো ঘুমের জন্য যেসব খাবার খাবেন, জেনে নিতে পারেন সে ব্যাপারে বিশেষজ্ঞদের মতামত –

১. রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস গরম দুধ খেতে পারেন। দুধ রাতে ভালো ঘুমে সাহায্য করে। দুধে বিদ্যমান অ্যামাইনো অ্যাসিড ট্রিপটোফ্যান ভালো ঘুমের জন্য সহায়ক।

২. খেতে পারেন ডিম। কারণ, ডিমে আছে ভিটামিন ডি। মস্তিষ্কের যে অংশের নিউরন ঘুমাতে সাহায্য করে, ডিমের ভিটামিন ডি সেখানে কাজ করে। ফলে ভিটামিন ডি’র ঘাটতি থাকলে সহজে ঘুম আসে না।

৩. আছে মিষ্টি আলু। এছাড়া মিষ্টি আলুকে বলা হয় ঘুমের মাসি। এতে বিদ্যমান পটাশিয়াম ঘুমাতে সাহায্য করে।

৪. খেতে পারেন কলাও। কলায় রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম, যা খেলে রাতে ঘুম ভালো হয়।

৫. মধু অনেক রোগ নিরাময়ের পাশাপাশি ঘুমেও সাহায্য করে। মধু সেরেটোনিন ও মেলাটোনিন তৈরি করে। তাই নিয়মিত মধু খেলে ভালো ঘুম হয়।

৬. নিয়মিত শরীরচর্চা করলে মানসিক অবসাদ থেকে অনেকটা মুক্ত থাকা যায়। ফলে রাতে একটি ভালো ঘুমের প্রত্যাশা করাই যায়।

৭. এছাড়াও আখরোটে থাকা ট্রিপটোফ্যান, যেটি সেরেটোনিন ও মেলাটোনিন তৈরিতে সাহায্য করে। রাতে ঘুমানোর আগে নিয়মিত দুটি আখরোট খেতে পারেন।

৮. কাঠবাদামে বিদ্যমান ম্যাগনেশিয়াম ও ট্রিপটোফ্যান স্নায়ু ও মাংসপেশিকে শান্ত করে। স্নায়ু এবং মাংসপেশি শান্ত হলে ঘুমও ভালো হয়।

৯. সবজির স্যুপ, আপেল, বাদাম, কিশমিশসহ অন্যান্য খাবার স্বাস্থ্যকর খাবার নিয়মিত খেতে হবে।

১০. লেটুস পাতায় বিদ্যমান ল্যাকটুক্যারিয়াম ভালো ঘুমে সহায়তা করে। এই পাতা গরম পানিতে ফুটিয়ে ও সালাদ করেও খেতে পারেন।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *