Header ad

কিংবদন্তি চলচ্চিত্র নির্মাতা সত্যজিৎ রায়কে হারানোর দিন

কিংবদন্তি চলচ্চিত্র নির্মাতা সত্যজিৎ রায়ের মৃত্যু বার্ষিকী আজ ২৩ এপ্রিল। ১৯৯২ সালে আজকের এই দিনে বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে না ফেরার দেশে চলে যান তিনি। বাংলা চলচ্চিত্রকে বিশ্বব্যাপী পরিচিত করে গেছেন তিনি।
সত্যজিৎ রায় ১৯২১ সালের ২ মে কলকাতা শহরের এক খ্যাতনামা বাঙালি পরিবারে জন্মেছিলেন। সত্যজিৎ রায়ের বাবা সুকুমার রায় ছিলেন বাংলা কবিতা ও শিশুসাহিত্যের সেরা লেখকদের একজন। সত্যজিৎ রায়ের দাদা উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীও ছিলেন একজন নামকরা লেখক, চিত্রকর, দার্শনিক ও প্রকাশক।
মাত্র তিন বছর বয়সে বাবা হারান সত্যজিৎ। মা সুপ্রভা দেবী বহু কষ্টে তাকে বড় করেন। বিশ্বখ্যাত রত্ন সত্যজিৎ বড় হয়ে কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজে অর্থনীতি পড়তে যান। ১৯৪০ সালের দিকে শান্তিনিকেতনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর প্রতিষ্ঠিত বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে কয়েকবছর পড়াশোনা করেন তিনি। ১৯৪৩ সালে শান্তিনিকেতন ছেড়ে তিনি কলকাতায় এসে ৮০ টাকা বেতনে একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থায় কাজ শুরু করেন।
সেবছর প্রখ্যাত ফরাসি পরিচালক জ্যঁ রেনোয়া তার ‘দ্য রিভার’ চলচ্চিত্রটির শুটিং করতে কলকাতায় এসেছিলেন। ‘দ্য রিভার’ ছবিতে রেনোয়ার সহকারীর কাজ করেন তিনি। এই সময় থেকে চলচ্চিত্র-নির্মাতা হিসেবে নিজেকে গড়ে তোলার স্বপ্ন বোনেন সত্যজিৎ। জানা যায়, ‘দ্য বাই সাইকেল থিফ’ ছবিটি দেখার পর তিনি চলচ্চিত্র নির্মাণে উদ্বুদ্ধ হয়েছিলেন।
১৯৫৫ সালে সত্যজিৎ রায় তার প্রথম চলচ্চিত্র ‘পথের পাঁচালী’ নির্মাণ করেন। প্রথম চলচ্চিত্র তাকে খ্যাতির শীর্ষে নিয়ে যায়। ‘পথের পাঁচালী’ মোট ১১টি আন্তর্জাতিক পুরস্কার লাভ করে। এটি কান চলচ্চিত্র উৎসব থেকে ‘বেস্ট হিউম্যান ডকুমেন্ট’ পুরস্কারও অর্জন করে।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *