Header ad

ক্ষেপেছেন নুসরাত

ভারতের দিল্লির নিজামুদ্দিন মারকাজে তবলিগ জামাতের অনুষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন প্রায় ৯ হাজার মানুষ। এদের মধ্যে সিংহভাগের শরীরেই থাবা বসিয়েছে COVID-19 বা করোনাভাইরাস। আরও আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা আছে। লকডাউনে নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে ধর্ম প্রচারের কাজ করে বিপদে হয়েছে বলে মনে করছেন ভারতের অনেকেই। আর এই সরব হলেন তৃণমূল সাংসদ ও অভিনেত্রী নুসরাত জাহান।

নিজামুদ্দিনের ঘটনা প্রসঙ্গে অভিনেত্রী ভারতীয় গণমাধ্যমে বলেন, কিছু মানুষের কারণে লাখ লাখ মানুষ বিপদের মুখে। এটা তো দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো কাজ। এক্ষেত্রে প্রশাসনের চেয়েও বেশি দায়ী সেসব মানুষেরাই। যারা লকডাউন ঘোষিত হওয়ার পরও এই অনুষ্ঠানে ছিলেন।

এই লকডাউনে বন্দী নুসরাত সবাইকে বাড়িতে থাকার অনুরোধ জানান। পাশাপাশি কখনও মাস্ক বিলি করেছেন তো আবার বাজার পরিদর্শনেও দিয়েছেন। পাশাপাশি বলেন, শরীরে করোনার লক্ষণ দেখা দিলে তা লুকিয়ে রাখবেন না দয়া করে। করোনা নিয়ে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। আগে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করানো দরকার।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *