Header ad

দীর্ঘ প্রেম, তিনবার বিয়ে, অতঃপর…

প্রত্যাশা জাগিয়েও বলিউডে যে নায়িকাদের ক্যারিয়ার দীর্ঘ হয়নি, তাদের মধ্যে অন্যতম সালমা আগা। আশি ও নব্বই দশকের এই জনপ্রিয় নায়িকা সময়ের আগেই হারিয়ে যান ইন্ডাস্ট্রি থেকে।

সালমা আগার জন্ম ১৯৬৪ সালের ২৯ অক্টোবর। পাকিস্তানের করাচিতে। তার বাবা লিয়াকত গুল আগা ছিলেন মূল্যবান পাথর ও অ্যান্টিক ব্যবসায়ী। ইরান থেকে তিনি উপাধি পেয়েছিলেন ‘আগা’।

প্রাচীন পারস্যে এই উপাধি দেওয়া হত সম্পন্ন বণিকদের। জন্ম করাচিতে হলেও সালমার শৈশব ও কৈশোরের বড় অংশ কেটেছে লন্ডনে। ব্রিটিশ নাগরিকত্বও রয়েছে তার।

সালমার দিদিমা আনোয়ারি বিবি ছিলেন ভারতীয় চলচ্চিত্রের প্রথম দিকের নায়িকা। তার প্রথম স্বামী রফিক গাঞ্জাভি ছিলেন সুরকার। মেয়ের জন্মের পর রফিকের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় আনোয়ারি বাঈ বেগমের। তিনি বিয়ে করেন ব্যবসায়ী যুগলকিশোর মেহরাকে। আনোয়ারিকে বিয়ে করবেন বলে পরিবারের বিরুদ্ধে গিয়ে ধর্মান্তরিত হন যুগলকিশোর। তার নতুন নাম হয় আহমেদ সালমান।

বলিউডের বিখ্যাত কাপুর পরিবারের দূর সম্পর্কের পরিজন ছিলেন যুগলকিশোর। কিন্তু ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে করার কারণে তার সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করেছিল কাপুর পরিবার।

আশি ও নব্বইয়ের দশকের বলিউড নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম ছিলেন সালমা। ১৯৮২ সালে মুক্তি পায় তার প্রথম ছবি ‘নিকাহ’। রাজ বব্বরের বিপরীতে এই ছবিতে সালমার অভিনয় প্রশংসিত হয়। এই ছবিতে প্লেব্যাক সিঙ্গারও ছিলে‌ন তিনি। নায়িকা ও গায়িকা, দু’টি ভূমিকাতেই পুরস্কৃত হন সালমা আগা।

১৯৮৪ সালে মুক্তি পায় মিঠুন চক্রবর্তী ও সালমা আগার ছবি ‘কসম প্যায়দা করনে ওয়ালে কি’। এই ছবিতে তার গলায় ‘কাম ক্লোজার’ খুবই জনপ্রিয় হয়।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *