Header ad

নাচে-গানে মাতিয়ে দিলেন নেহা

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় গায়িকা নেহা কক্কর শুধু গানই না, ভালো নাচেনও। কীভাবে গান-নাচ দিয়ে দর্শকদের মনজয় করা যায়, তা তিনি খুবই ভালো জানেন। লকডাউনের সময় তার থ্রোব্যাক ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়া-তে খুবই ভাইরাল হয়েছে। কোনো ভিডিওতে তাকে স্টেজে গান গাইতে দেখা যাচ্ছে, কোনটাতে নাচতে। তার ভক্তরা ঘরে বসে ভিডিও দেখছেন এবং জমিয়ে মন্তব্য করে যাচ্ছেন। নেহার এই থ্রোব্যাক ভিডিওগুলো ফ্যান পেজ থেকে ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করা হয়েছে।

সম্প্রতি নিজের একটা সাক্ষাৎকার নিয়ে শিরোনামে এসেছিলেন নেহা কক্কর। সেই সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, তিনি এক নম্বর স্থানে থাকার জন্য কিছু লোক তাকে হিংসা করেন। তিনি জানান, “চার বছর বয়স থেকে আমি সঙ্গীতচর্চা করছি। যথেষ্ট কষ্ট করে প্রতিষ্ঠা পেতে হয়েছে।”

সাক্ষাৎকারে নেহা বলেন, চার বছর বয়স থেকে গান শুরু করে ১৬ বছর পর্যন্ত শুধু ভজন গেয়েছি। তবে আমি যখন ভজন সন্ধ্যায় অংশ নিতাম; দর্শকদের বেশ জমিয়ে রাখতাম। আমার সে সময়ের ভিডিও দেখলেই বুঝবেন; কীভাবে আমি ভজনসন্ধ্যায় একটা দৈবিক পরিবেশ তৈরি করতাম। কীভাবে দর্শকরা আমার গান মন দিয়ে শুনতেন।

অন্যদিকে, এই লকডাউন আবহে সঙ্গীত প্রেমীদের জন্য নতুন গান নিয়ে এসেছেন নেহা কক্কর। ভিগি-ভিগি এই গানে নেহা ছাড়াও গলা দিয়েছেন টনি কক্কর। গানটি লিখেছেন টনি কক্কর ও প্রিন্স দুবে। ইউটিউবে এই গান প্রকাশের পর থেকে চার লাখ ভিউজ হয়ে গিয়েছে।

রোম্যান্টিক এই গান, লকডাউনের আবহে সঙ্গীতপ্রেমীদের বেশ আকৃষ্ট করেছে; তা ভিউজ থেকেই স্পষ্ট। ইতোমধ্যে একাধিক জনপ্রিয় বলিউডে গানে কণ্ঠ দিয়ে অনুরাগীর সংখ্যা বাড়িয়েছেন নেহা কক্কর। দিলবার-দিলবার; কালা চশমা; আঁখ মারে, সেকেন্ড হ্যান্ড জওয়ানি’র মতো গানে তার গলা মজিয়েছে সঙ্গীত প্রেমীদের। সেভাবেই রিলিজের কয়েক ঘণ্টার মধ্যে একাধিক সঙ্গীত মাধ্যমে চর্চার বিষয় হয়ে উঠেছে ভিগি-ভিগি গান।

About The Author

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *